ঢাকাবৃহস্পতিবার, ২৬শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, বিকাল ৫:৫৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর লেনদেনে মানি লন্ডারিংয়ের অপরাধ হয়েছে কি না, তা তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে আরেকটি রিট হয়েছে

দৈনিক স্বরবর্ণ
সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১ ১০:২৯ অপরাহ্ণ
পঠিত: 226 বার
Link Copied!

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর লেনদেনে মানি লন্ডারিংয়ের অপরাধ হয়েছে কি না, তা তদন্তের নির্দেশনা চেয়ে হাইকোর্টে আরেকটি রিট হয়েছে। এ নিয়ে ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি–কাণ্ডের পর উচ্চ আদালতে পৃথক তিনটি রিট হলো। তিনটি রিট হাইকোর্টের পৃথক দুটি বেঞ্চে আগামীকাল রোববারের কার্যতালিকায় উঠছে।

এ ছাড়া ইভ্যালিতে পণ্য অর্ডার ও অর্থ পরিশোধ করে পণ্য ও টাকা ফেরত না পেয়ে ইভ্যালির অবসায়ন চেয়ে হাইকোর্টের কোম্পানি বেঞ্চে করা মামলার পরবর্তী শুনানির জন্য ৩০ সেপ্টেম্বর দিন রয়েছে।

প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের মামলায় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালি ডটকম লিমিটেডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল ও তাঁর স্ত্রী শামীমা নাসরিন ১৬ সেপ্টেম্বর গ্রেপ্তার হন। ১৭ সেপ্টেম্বর তাঁদের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত। রাসেলের স্ত্রী শামীমা ইভ্যালির চেয়ারম্যান। ই-কমার্স খাতের এমন একাধিক ঘটনা নিয়ে দেশব্যাপী আলোচনা চলছে। এমন প্রেক্ষাপটে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ও ভুক্তভোগী গ্রাহক হাইকোর্টে পৃথক তিনটি রিট করেন।
ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠা চেয়ে রিট

অনলাইন বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসির ম্যান্ডেট অনুসারে একটি স্বাধীন ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠার নির্দেশনা চেয়ে ২০ সেপ্টেম্বর সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মো. আনোয়ারুল ইসলাম রিট করেন।
রিটের প্রার্থনায় দেখা যায়, ই-কমার্স বাণিজ্যে জবাবদিহি নিশ্চিত ও গ্রাহকের অধিকারবিরোধী চর্চারোধে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা বা ব্যর্থতা কেন বেআইনি ঘোষণা করা হবে না, এ বিষয়ে রুল চাওয়া হয়েছে। ২০১৮ সালের জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসির ম্যান্ডেট অনুসারে অনলাইন বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গ্রাহকদের স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় একটি স্বাধীন ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না, সে বিষয়েও রুল চাওয়া হয়েছে রিটে।

আর রুল হলে তা বিচারাধীন অবস্থায় অনলাইন বাণিজ্যের ক্ষেত্রে গ্রাহকের স্বার্থ ও অধিকার রক্ষায় জাতীয় ডিজিটাল কমার্স পলিসির ম্যান্ডেট অনুসারে একটি স্বাধীন ই-কমার্স নিয়ন্ত্রণকারী কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠায় কী উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে, তা জানিয়ে বিবাদীদের আদালতে প্রতিবেদন দাখিলের আরজি রয়েছে রিটে।

রিট আবেদনকারী মো. আনোয়ারুল ইসলাম আজ শনিবার প্রথম আলোকে বলেন, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চে আগামীকাল রোববারের কার্যতালিকায় ১৩৯ নম্বর ক্রমিকে রিটটি শুনানির জন্য রয়েছে।

 

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।