ঢাকারবিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, দুপুর ১:১৪
আজকের সর্বশেষ সবখবর

দেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের পরীক্ষামূলকভাবে করোনার টিকা দেওয়া শুরু হচ্ছে

সুদীপ্ত
অক্টোবর ১৪, ২০২১ ১০:০৫ পূর্বাহ্ণ
পঠিত: 156 বার
Link Copied!

দেশে ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের পরীক্ষামূলকভাবে করোনার টিকা দেওয়া শুরু হচ্ছে আগামীকাল বৃহস্পতিবার। মানিকগঞ্জের দুটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের এ টিকা দেওয়া হবে। শিশুরা পাবে যুক্তরাষ্ট্রের ফাইজারের টিকা। এরপর পর্যবেক্ষণ করা হবে এসব শিক্ষার্থীর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে কি না।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম আজ বুধবার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক লাইভে এ তথ্য জানিয়েছেন। তিনি বলেন, মানিকগঞ্জের কর্নেল মালেক মেডিকেল কলেজে শিশুদের করোনার টিকার পরীক্ষামূলক কার্যক্রম হবে। মানিকগঞ্জ স্বাস্থ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী এলাকা। সেখান থেকেই এটা শুরু হচ্ছে।

আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম আরও জানান, প্রাথমিকভাবে দুটি সরকারি স্কুলের শিক্ষার্থীদের বেছে নেওয়া হয়েছে। তাদের টিকা দেওয়ার পর কোনো পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হচ্ছে কি না, তা ১০ থেকে ১৪ দিন পর্যবেক্ষণ করা হবে। এরপর ঢাকায় বড় আকারে শিশুদের টিকা কার্যক্রম শুরু করা হবে। এ কাজে যুক্ত করা হবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়কে।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত ১৫ সেপ্টেম্বর জাতীয় সংসদের প্রশ্নোত্তর পর্বে লিখিতভাবে বলেন, সরকার শিশুদের করোনার টিকার আওতায় আনবে। পর্যায়ক্রমে দেশের জনগোষ্ঠীর ৮০ শতাংশকে টিকা দেওয়া হবে।

গত ১৫ সেপ্টেম্বর বিবিসির এক প্রতিবেদন বলা হয়, গত মে মাসে যুক্তরাষ্ট্র প্রথম ১২ বছর বা তার বেশি বয়সী শিশুদের টিকা দেওয়ার অনুমোদন দেয়। গত জুলাই পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের ১২ থেকে ১৭ বছর বয়সী শিশুদের ৪২ শতাংশ ফাইজার অথবা মডার্নার টিকার প্রথম ডোজ পায়। আর ৩২ শতাংশকে দুই ডোজই দেওয়া হয়।

বিবিসির প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি (ইএমএ) গত মে মাসেই শিশুদের ফাইজারের টিকা দেওয়ার অনুমোদন দেয়। এরপর ডেনমার্ক, স্পেন, ফ্রান্সসহ বিভিন্ন দেশ শিশুদের টিকা দেওয়া শুরু করে।

এদিকে গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রে ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের করোনার টিকা দেওয়ার জন্য দেশটির নিয়ন্ত্রক সংস্থার কাছে অনুমোদন চেয়েছে ফাইজার।

বাংলাদেশ এখন পর্যন্ত ৩৬ লাখ ৬৬২ ডোজ ফাইজারের টিকা পেয়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, গত মঙ্গলবার পর্যন্ত ফাইজারের টিকার প্রথম ডোজ পেয়েছেন ২ লাখ ৬৩ হাজার ৫৪২ জন। আর দুই ডোজ পেয়েছেন ৫৩ হাজার ৯৬২ জন। ফলে সরকারের হাতে এখনো ৩২ লাখের বেশি ফাইজারের টিকা রয়েছে।

দেশে বুধবার পর্যন্ত টিকার জন্য নিবন্ধন করেছেন ৫ কোটি ৩৬ লাখ ৪২ হাজার ৯৮৮ জন মানুষ। অন্তত এক ডোজ টিকা পেয়েছেন ৩ কোটি ৭২ লাখ ৫ হাজার ৭৬৬ জন। দুই ডোজ পেয়েছেন ১ কোটি ৮৪ লাখ ৫৫ হাজার ১৬৯ জন। নিবন্ধন করে টিকা পাওয়ার অপেক্ষায় ১ কোটি ৬৪ লাখের বেশি মানুষ। এর মধ্যে শুরু হচ্ছে শিশুদের পরীক্ষামূলক টিকাদান।

বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষা প্রসঙ্গ

ফেসবুক লাইভে শিশুদের টিকাদানের পাশাপাশি ঢাকার হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে করোনা পরীক্ষার ব্যবস্থা নিয়ে কথা বলেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক। তিনি বলেন, ‘বিমানবন্দরে বিদেশগামীদের করোনা পরীক্ষা নিয়ে অব্যবস্থাপনার কথা বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ও স্বাস্থ্য অধিদপ্তরকে দোষারোপ করা হচ্ছে।

আমরা কাউকে দোষারোপ করতে চাই না। বিদেশযাত্রীদের পরীক্ষার ব্যাপারে যাদের দায়িত্ব ছিল, তারা সেই সময়ে সেই কাজটি করেনি।’

আবুল বাসার মোহাম্মদ খুরশীদ আলম আরও বলেন, ‘আমাদের দায়িত্ব পরীক্ষার ব্যবস্থা করা। সেটা আমরা করে দিয়েছি। বাকি দায়িত্ব স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কিংবা স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নয়।’

এই সাইটে নিজম্ব নিউজ তৈরির পাশাপাশি বিভিন্ন নিউজ সাইট থেকে খবর সংগ্রহ করে সংশ্লিষ্ট সূত্রসহ প্রকাশ করে থাকি। তাই কোন খবর নিয়ে আপত্তি বা অভিযোগ থাকলে সংশ্লিষ্ট নিউজ সাইটের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করার অনুরোধ রইলো।বিনা অনুমতিতে এই সাইটের সংবাদ, আলোকচিত্র অডিও ও ভিডিও ব্যবহার করা বেআইনি।